হায়রে সুপারস্টার এতো নিচু মনের মানুষ আপনি

অপুকে  শাকিব খানের তালাক নোটিশের জবাবে অনলাইলে ঝড়, রসপুরী পাঠকদের জন্য
তুলে ধরা হল কিছু  কিছু পোস্ট

ছবি ফেসবুক

আল আমিন আহমেদ
 হায়রে সুপারস্টার এতো নিচু মনের মানুষ আপনি আগে জানা ছিলো না। 😡😡😡
অপু বলেন,শাকিবের আপত্তির মুখে তিনবার অ্যাবরশন করাতে হয়েছে তাকে। জয় যখন গর্ভে আসে তখন অ্যাবরশন করানোর জন্য আমাকে ব্যাংককের বামরুনগ্রাদ হাসপাতালে পাঠায় শাকিব। সেখানকার চিকিৎসক জানান, যেহেতু আগে তিনবার অ্যাবরশন হয়েছে আর নতুন করে কনসেপ্টের সময় ৪ মাস হয়েছে, সেহেতু অ্যাবরশন করানো ঝুঁকিপূর্ণ। এরপর শাকিব আমাকে কলকাতা পাঠায় অ্যাবরশন করানোর জন্য। সেখানকার চিকিৎসকরাও অ্যাবরশন করতে অস্বীকার করেন। তখন আমি সন্তান জন্মদানের সিদ্ধান্ত নেই। আর এতেই শাকিব আমার ওপর খেপে যায়। তার সঙ্গে সম্পর্কের অবনতি ঘটে।

রীমা রীমা


আজীব নিয়ম রে বাবা!!
বিয়ের পর শাকিব খান দি গ্রেট ভিলেন অন্য মেয়েদের সাথে মেলামেশা করলে সেইটা হয় বন্ধুত্ব আর অপু কথা বললেও হয় বয়ফ্রেন্ড্ ।আমি হতবাক, নির্বাক ।
যাকে শুরু থেকে শেষ অবধি একজন স্বামী কিংবা বাবার কোন দায়িত্ব ই পালন করতে দেখলাম সে অপু কে বলে দায়িত্বহীন।এতে বড়ই আশ্চর্য হলাম ।
এইরকম একজন হীনমনষ্কসীন মানুষ কে আমি কিভাবে এত দিন সমর্থন করলাম। নিজেকেই তো চিনতে কষ্ট হচ্ছে । 
তবে উপরওয়ালার কাছে মন থেকে চাইছি যেন শাকিব খান এর পতনটা খুব শ্রীগই দেখতে পারি তার সাথে ঐ তৃতীয় মানুষগুলোর ও।

সিফা আরমিন

আমি বিশ্বাস করি আল্লাহ যা করেন তার বান্দার ভালোর জন্যই করেন। হয়ত আপনার জন্য অনেক অনেক ভালো কিছু অপেক্ষা করছে। যার কারনে এমনটা হয়েছে। এই বিশ্বাসটা মনে ধারন করো দেখবে সব ঠিক হয়ে যাবে। সময়টা তোমার জন্য অসময় নয় বরং সুসময়। নিজেকে ভেঙ্গে নতুন করে গড়ার সুসময়। আজকের কষ্টটা তুমি একা পাওনি। তোমার কোটি ভক্তরাও পেয়েছে। আমরা আছি তোমার পাশে এবং থাকব। বদলে যাওয়া সময়ের সাথে নিজেকেও বদলাও। এই প্রত্যাশায়.........

আমি তুমি সেই

শাকিবকে আমার কখনোই ভালো লাগতোনা।যখন থেকে অপু বিশ্বাসের সাথে ছবি করা শুরু করলো তখন থেকে একটু ভালো লাগতো।আর এখন আমি অপু বিশ্বাসের ছবি ছাড়া আর কোনো ছবি দেখবোনা।শাকিবকে আমি বয়কট করলাম
ছবি ফেসবুক

এম.ডি আকাশ
আজ থেকে আর শাকিবের মুভি দেখবো না । আমি অপুর ভক্ত নই । আমি সাকিবের ভক্ত । এই প্রথম শাকিবের স্বিদ্ধান্ত আমি মেনে নিতে পারলাম না । ছিহ শাকিব ছিহ । সন্তানের কথা ভেবে হলেও এই স্বিদ্ধান্ত ণেয়া ঠিক হয়নি আপনার । এখনো সময় আছে আপনি নিজের ভূল শুধ্রে নিন । অপুকে নিয়ে সংসার করুন । অন্তত সন্তানটির কথা ভেবে । সন্তানের থেকে নিজের ইগো তো আর বড় হতে পারেনা । আপনার ভক্ত হিসেবে এটি আপনার কাছে আমার অনুরোধ ।টাকা দিয়ে সব হয়না । নিজের ইগো রক্ষা করতে গিয়ে সন্তানকে এতিম করেছেন আপনি । সে মা বাবার আদর আদর একসাথে পাবে না । যখন সে বড় হবে স্কুলে যাবে ,বন্ধুরা তখন তাকে নিয়ে তামাশা করবে । নিজের জন্য না হোক সন্তানের জন্য হলেও অপুকে ক্ষমা করে দিন ।( আপনার এক ভক্ত )

উপরের পোষ্ট গুলি ফেসবুকের সৌজন্য
                                     
                                     



Powered by Blogger.